আসছে ফরহাদ হোসেইন এর “তৃতীয় পক্ষ”।

শক্তিশালী লেখক ফরহাদ হোসেন ভাইয়ের লেখার জন্য আমি মনে মনে অপেক্ষা করতাম। খুব মজার ব্যাপার হলো, তার লেখা পোস্ট করা মাত্রই পড়ে ফেলা এবং “প্রথম ” লিখে কমেন্ট করা একটা প্রায় নিয়ম হয়ে গেছে আমার জন্য। সেই ফরহাদ হোসেন ভাইয়ের লেখা দুই মলাটের ভেতর আসতে যাচ্ছে, এর চেয়ে বেশি খুশির খবর আর হতেই পারে না।

তার লেখার সবচেয়ে ভালো দিক কোনটা, লিখতে গিয়ে আমার অনেক চিন্তা করতে হলো। তার লেখার একটা আকর্ষণীয় দিক হলো তার বিশেষ পর্যবেক্ষণ ক্ষমতা ব্যবহার করে পুরো একটা প্রাকৃতিক পরিবেশ তৈরি করে ফেলা। পড়ে নিজেকেই মনে হয় ঘটনাস্থলে পৌঁছে গেছি, গিয়ে চোখের সামনে সব কিছু ঘটতে দেখতে পাচ্ছি। সব কিছু চোখের সামনে জীবন্ত হয়ে ভেসে ওঠে। তার লেখার আরেকটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হলো মানুষের জীবনের বৈচিত্র্যময় চরিত্রের সঙ্গে পরিচিত হতে পারা। তার লেখা পড়ে আমি মনে মনে নিজেই তার সাথে সাথে চলে গেছি ডালাসে, ঘুরে এসেছি টিভিতে প্রচারিত জায়গাগুলো থেকে। তার “তৃতীয় পক্ষ” বইটিতে থাকা “মেয়েটি এখন কোথায় যাবে ” আমার সবচেয়ে প্রিয় গল্পগুলোর একটি। গল্পের মেয়েটির জন্য চিন্তিত হয়ে যাই আমরাও, তার সাথে একাত্ম হয়ে যাই, তার সাথে সাথে সংকটে পতিত হয়ে যাই। কী হবে এখন? কোথায় যাবো এখন? লেখক আমাদের চিন্তার জগতে আলোড়ন তৈরি করে ফেলতে পারেন অনায়াসে, কি সহজেই! তার লেখা ছোট ছোট সংলাপে গল্প এগিয়ে যেতে থাকে তরতর করে, উঁচু থেকে গড়িয়ে পড়ে যাওয়া জলপ্রপাতের মতো স্বচ্ছন্দ গতিতে। তার বিশেষ গুণ, তার গল্পগুলো পড়ে মনে হয় সব জিম করে বের হয়েছে, এমনই মেদহীন, ঝরঝরে! ভাত রান্নার কাজ যেমন নিখুঁত রাঁধুনির, ফরহাদ হোসেন ভাইয়ের লেখাও তাই! একটা ভাতের সঙ্গে আরেকটা লেগে যাবে না, না নরম না শক্ত, গোগ্রাসে গিলতে হবে! এই গল্প সংকলনে আমার আরও একটা প্রিয় গল্প হচ্ছে “হৃদয়ে আগন্তুক “। এই গল্পের প্লট, কাহিনী সবই একদম পরিচিত। অতীতে এই কাহিনী নিয়ে অনেক গল্প লেখা হয়েছে, হয়তো ভবিষ্যতে আরও অনেক হবে। যা নতুন তা হলো, ফরহাদ হোসেন ভাইয়ের লেখায় ভিন্ন মাত্রায় উপস্থাপন। মানুষের মনের আবেগের ওঠাপড়া, গল্পের টান টান প্রাণবন্ত উপস্থাপন এই গল্পকে অনন্য বৈশিষ্ট্য দিয়েছে। ” তৃতীয় পক্ষ ” বইতে আরও তিনটি গল্প থাকবে, কিন্তু সেগুলো সারপ্রাইজ হিসেবে আপনার জন্য তোলা থাকুক। সবগুলোই এমন যে পড়তে শুরু করলে শেষ না করে উঠতে পারবেন না। দারুণ এই গল্প সংকলনটি প্রকাশিত হয়েছে অন্যপ্রকাশ থেকে। বইটি পড়তে মিস করলে ভুল করবেন।

-মৌলি আখন্দ