এই শহরে আমার পদচিহ্ন পড়েনি বহুদিন

একদা কোন এক কালে বিমুখ হয়ে ফিরে গিয়েছিলাম তোমাদের এই শহর থেকে,
এরপর আজ অবধি এই শহরে আমি বহুদিন আসিনি,
তবে শুনেছি এখানে ব্যস্ততা বেড়েছে হাজার গুণ মানুষের, কেউ কারো কুশলাদি জিজ্ঞেস করার সময় পায় না,
শুধুই মানুষের নিরন্তর ছুটে চলা।
এই শহরে এখন নাকি রাতের আকাশ জুড়ে তারারা নামে না,
মধ্যরাতের জোৎস্না এখন পালায় অন্য কোন খানে,
এই শহরের বাতাসে বাতাসে পোড়া মানুষের মাংসের গন্ধে মাখা,
এই শহরের বাতাসে মিশে গেছে বিষাক্ত নিকোটিন, ফুসফুস জুড়ে মানবতাহীন ক্যান্সারে আক্রান্ত শত শত মানুষ,
এখানে বাতাসের সাথে ধ্বণিত হয় শত অসহায়ের কান্নার আহাজারি,
এত মানুষ তবু কারো শোনার কেউ নেই।

আমি শুনেছি এই শহরে এখন কদিন পর পর পোড়া মাংস বিক্রি হয়,
মানুষের প্রাণের দাম এখানে খুব অল্পতে বিক্রি হয়,
এই শহরে নুসরাতরা পুড়ে মরে, বাতাসে কেবল পোড়া মাংসের গন্ধে সয়লাব হয়,
এই শহরে কাপুরুষেরা বুক উচু করে রাস্তায় ব্যারিকেড দেয়,
সব প্রমাণ হাতের কাছে তবু এই শহরে বিচারের বাণী নিরবে কাঁদে।

এই শহরে এই জন্য আমার পদচিহ্ন পড়েনি এতোদিন,
সভ্যতার আড়ালে এখানে লুকিয়ে থাকে অগণিত রক্তচোষা সমাজপতিরা,
এদের বিরুদ্ধে এখনি রুখে দাঁড়াতেই হবে,
এভাবে এদের দুর্গন্ধে এই শহর আমরা পঁচে যেতে দিতে পারি না।।

-নিলয় আহমেদ