চাই

“নারী মানে নারীই শুধু “এই ধারনা বদলানো চাই,
নিজের ভেতর মানুষটাকে হিঁচড়ে টেনে বের করা চাই।

সব মেয়েরই একটা নিজের জায়গা থাকা চাই,
রিকশা চেপে নিরুদ্দেশে একা একা মন হারাতে খানিক সাহস চাই।

এক সকালে ইচ্ছে মতো ঘুমিয়ে থাকার আনন্দ চাই,
হঠাৎ কোনো দুপুর বেলা রান্না ফেলে উপন্যাসে ডুবে থাকার মুক্তিটুকু চাই।

ভর সন্ধ্যায় পুকুর পাড়ে, ছাদের ধারে আনমনা মন নিজের মত ভাসতে দেয়া চাই,
খোলা চুলে আপন ভুলে নিজের মাঝে নিজের ছবির প্রতিচ্ছবি চাই।

মুখ দেখতে নারীর একটা নিজের মতো আয়না থাকা চাই।

আঁধার পথের দিশা হতে
হাতে নারীর তপ্ত মশাল চাই,
উত্থিত হাত মুচড়ে দিতে
বাহুতে তার শক্তি পোষা চাই।

নারী বলে উপেক্ষাটার দাঁত ভাঙতে জবাব বুকে চাই,
ঘরে বাইরে স্বীকৃতি নয়, শেকড় থাকা চাই।
প্রেমের ধারায় ভাসতে গেলেও পায়ের নিচে শক্ত মাটি চাই,
স্নেহ, মায়ার সাথে এখন
অধিকারের জয়পতাকা ঠিকই হাতে চাই।

মহত্বের সোনার খাঁচার মিথ্যে প্রাচীর , শেকল ভাঙা চাই।
নারীর এবার খোলস ফেলে মানুষ হওয়া চাই।।

বুলু রানী ঘোষ