বিভ্রান্ত পথিকের বিলাপ (কবিতা)

তোমাদের সব প্রলোভন আমি বুঝতে পারি না।
তাই নিশ্চুপ নিশ্চল থাকাই শ্রেয় মনে হচ্ছিল আমার।
কিন্তু কেন জাগালে এই প্রাণের আকুতি,কেন করলে প্রবঞ্চনা?
তোমাদের এই রঙিণ মঞ্চে, আমি আনাড়ি কুশলব।
কুম্ভীলতা আমার মজ্জাগত নয়, আমি দিশাহীন।
তবু এই অবেলায় আমায় জাগালে অকৃত্তিম চাতুরতায়।
বেলাশেষে এক বক্রপথে আমায় ঠেলে দিলে।
আমি এখন নি:ক্ষত্রিয় নি:শেষিত।
নিকষকৃষ্ণ অন্ধকারবাসিনী।
তোমার নিপুণ অভিনয়
আমার এই আটপৌঢ়ে জীবনে এক লহমা বিলাসী দু:খ।
তবু তুমি আর তুমিতেই আমি লীনাঙ্গিনী।
বড় নিষ্ঠুর আমাদের এই বোধ যাকে সব সময় বাগে রাখা দায়।
বুঝেও অবুঝের মত বিভ্রান্ত পথে বিচরণ।
বিস্তৃর্ণ বিপথে তবু সারম্ভর যাত্রা।
বেলা অবেলার বেহিসেবী সময় খরচ।
বেঁচে থাক তবু এক লোক-দেখানো ভালোবাসা।
তুমি ও তোমরা ভালো থেকো।

-আলী হোসেন বিদ্যুৎ