ভালোবাসা আজকাল

সেদিন প্রলুব্ধ হয়ে আড়ষ্টতার প্রহর গুনছিলাম আমি
অকস্মাৎ এক নীলাম্বরীর ঐকতানে মুখরিত হলাম
বসন্ত বেলায়;
পাগলপারা মনের দৌরাত্মে।
নিস্পেষিত হৃদয়ে উপেক্ষা করতে পারিনি
তোমার অনুচ্চারিত অভিলাষ;
সুপ্ত ভিসুভিয়াস উদগীরনের প্রারম্ভেই
কুহু-কলতানে মুখরিত করেছিলে আমার চাপরাশ।
এক নিমেষেই শুষ্ক বসন্তকে রাঙিয়ে দিয়েছিলে দোলাচলে
আর আমি, অস্ফুট স্বরে বলে উঠেছিলাম
আনন্দম!

কলম্বাসের আমেরিকা আবিষ্কারের মতোই
খুঁজে পাওয়ার আনন্দে
পতাকা উত্তোলন করেছিলাম হৃদয়ের চিলেকোঠায়
ভাবাপ্লুত ছিলে তুমি অন্তরে
শংকাহীন মন্তরে।

কিন্তু অকস্মাৎ কোথায় যেন শুনতে পেলাম রটনা
অবিশ্বাস্য বাতাসকে উগরে দিয়ে জানলাম
সেটা সত্যিকারের ঘটনা।
সেই তুমি এখন ভালোবাসার স্টল নিয়েছ
দুর্বিসহ ফাগুনের মেলায়
ভালোবাসা দিবসেই নাকি পসার জমে ভালো
আর তাই, দিনমান পরিশ্রান্ত হয়ে বলি
আমার নির্বর্ষ শ্রাবণ-ই ভালো।

জামান একুশে