হলে মন্দ কি বলো?

স্নিগ্ধ ভোরে চোখের পাতায় ঠোঁটের আলতো ছোঁয়া
মদির স্পর্শে সারা শরীরে সুখের অনুরণন
আঁখি পল্লব ধীরে ধীরে সরে যাচ্ছে কোন সুদূরে
হলে মন্দ কি বলো?
ভালোলাগার পরশ নিউরনগুলোকে জাগিয়ে দেয়
আমি তো মুখিয়ে আছি ভালো বাসতে।
সদ্য জাগ্রত ঘোলাটি চোখে প্রাণের স্পন্দন এনে দিতে
সে ছোঁয়াটুকুর প্রয়োজন ক’জন বুঝে বলো?
ঘোলাটে চোখে অজান্তে সাগরের নীল বাসা বাঁধে
আকাশের সব নীল জমা হতে থাকে প্রেম কাতর আঁখিতে
এটুকু হলে মন্দ কি বলো?
চোখের তারায় হাজার তারার উদ্দাম নৃত্য
ভালোবাসার জলোচ্ছ্বাস হয়ে আছড়ে পড়বে
মুখের কাছে লোভনীয় দুটি ঠোঁটে
এমনটি হলে অপরাধ হবে কি বলো?
দুটি ভালোবাসার হাত সর্পিল গতিতে
পেলব পিঠকে আঁকড়ে ধরবে মদিরতা নিয়ে
সদ্য স্নাত কগাছি চুল লেপ্টে রবে ললাটে প্রেম কাতরতা নিয়ে
অপলকে প্রেমের আহ্বান উপেক্ষা করা সাধ্য কার?
খুব কি বেশি চাওয়া হলো?
বজ্র আঁটুনিতে বুকের মাঝে দ্রিম দ্রিম ঢাকের শব্দ
শান্তির পেলব পরশ শব্দে এনে দেবে ছন্দের আমেজ
কান পেতে রবে বুকের মধ্য খানে
শুনবে হৃদয়ের আকুল করা প্রণয়ের গান
হলে মন্দ কি বলো?
দুজনে ডুবতে ডুবতে সাগর মহাসাগর খুঁজে
খোলস খুলে মুক্তো জড়ো করবো জলকেলিতে
ভিজে একাকার হবো ভালোবাসার বৃষ্টিতে
নতুনত্বের অনুসন্ধানে ব্যস্ত রবে দুটি দেহ মন
হলে মন্দ কি বলো?
একটি স্নিগ্ধ প্রেমময় ভোর দিনকে করে তুলবে রৌদ্রময় সতেজ
স্বপ্নিল আলোয় উদ্ভাসিত,
ছোঁয়ার অনুরণন শক্তি যোগাবে
শরীরে মেখে রবে আলস্যময় ভালোলাগা
দুচোখ কেবলই সময় দেখবে
কখন পাবে পাশে দোহে
বিলীন হবে একে অন্যের
প্রগাঢ় ভালোবাসায়।
হলে মন্দ কি বলো?

-বাউল সাজু